শিরোনাম :
নবীনগর বাজারের উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ না করার দাবিতে ও স্মারকলিপি প্রদান নবীনগরে ঐতিহ্যবাহী গ্রামীণ লাঠি খেলা দেখতে দর্শকদের উপচেপড়া ভিড়। নবীনগর উপজেলা শাখা সাংবাদিক কল্যাণ পরিষদ (বাসকপ) আংশিক কমিটি ঘোষণা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাংবাদিক সমিতির সভাপতি জুয়েল, সাধারণ সম্পাদক মাসুম নবীনগর সাংবাদিক সমিতির আত্মপ্রকাশ, সভাপতি কাউছার, সম্পাদক মেহেদী নবীনগরে নৌকার প্রার্থী ফয়জুর রহমান বাদলকে নির্বাচিত করার লক্ষ্যে পরামর্শ সভা অনুষ্ঠিত নবীনগরে যথাযথ মর্যাদায় বিশ্ব শিক্ষক দিবস উদযাপন। নবীনগরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীকে আর্থিক সহায়তা প্রদান। সূর্যতরুন সমাজ কল্যাণ সংস্থা’র গুণীজন ও কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা গুণীদের কদর না করলে কখনোই সমাজে গুণীরা তৈরি হয় না:ব্যারিস্টার মোস্তাকিম রাজা চৌধুরী বর্তমান সময়ে লেখাপড়ার কোনো বিকল্প নাই:সাংসদ এবাদুল করিম বুলবুল।
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:১৮ পূর্বাহ্ন

নবীনগরে ইউপি সদস্য খলিল মিয়াকে ব্লাকমেইল করায় সংবাদ সম্মেলন।

প্রতিনিধির নাম / ৬৩০ বার
আপডেট : শনিবার, ১০ জুন, ২০২৩

কাউছার আলম, নিজস্ব প্রতিবেদক।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নে রাসেল মিয়া ও তার স্ত্রী আখিঁ বেগমের বিরুদ্ধে ব্লেকমেইলিং করে টাকা আদায়ের অভিযোগ করেছেন ওই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মোঃ খলিল মিয়া। এ ঘটনায় ওই দম্পতির বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় মামলা করেন তিনি। শনিবার সকালে শিবপুর হাইস্কুল মাঠে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ইসলামপুর গ্রাম উন্নয়ন পরিচালক মোঃ রুপ মিয়া, গ্রাম উন্নয়ন কমিটির সভাপতি আব্দুল ঔদুধ, ইসমাইল ফকির, হাজ্বী হোসেন মিয়া, মোঃ হোর্শেদ আলম, আবু জামাল দারুগা। এছাড়াও প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে খলিল মিয়া তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, খলিল মিয়া ও রাসেল মিয়ার মধ্যে সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সামাজিক বিরোধ চলে আসছিল। অভিযুক্ত দম্পত্তি ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে বাসা ভাড়া করে দির্ঘদিন ধরে অনৈতিক কর্মকান্ত চালিয়ে আসছে। গত একুশে মে খলিল মেম্বার তার ব্যবসায়ীক কাজে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সদরে যান। ওই দম্পত্তি কৌশলে তাকে তাদের ভাড়া বাসায় ডেকে নিয়ে জোর পূর্বক মারধর করে ছুরি ধরে হত্যার হুমকি দিয়ে একটি মেয়ের সাথে আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে ৫ লাখ টাকা দাবী করে। প্রানের ভয়ে ব্যবসায়ীক কাজের সাথে থাকা দুই লক্ষ ষোল হাজার ও দুইটি স্মাট মোবাইল সেট দিয়ে সেখান থেকে ছাড়া পায়। পরবর্তীতে ওই আপাত্তির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করার ভয় দেখিয়ে আরো ৫০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। এভাবে দিনের পর দিন বিভিন্ন অংকের টাকা দাবী করে আসছে, ওই সমস্ত টাকা দিতে না পারায় ভিডিওটি সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়া হয়। খলিল তার লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, ওই দম্পত্তি বাহ্মণবাড়িয়া শহরে বিভিন্ন জায়গায়বাসা ভাড়া করে স্থানীয় উশৃঙ্খল, নেশাখোর, চোর, ছিনতইকারী ও অপরহণকারী ছেলেদের সাথে জোটবদ্ধ হয়ে কৌশলে বিভিন্ন লোকদের ধরে এনে অনৈতিক আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে টাকা কামাইয়ের ব্যবসা করে আসছে। গত ৩১মে ওই দম্পত্তির বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণাড়িয়া সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন তিনি। এঘটনায় জড়িতদের তিনি প্রশাসনের মাধ্যমে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান।

এব্যাপারে অভিযুক্ত রাসেল মিয়ার সাথে কথা বললে, তিনি এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না বলে কোন বক্তব্য দিতে রাজী হননি। এব্যাপারে রাসের মিয়ার স্ত্রী অখিঁ বেগম রাসেল তার স্বামী নয় পরিচিত দাবী করে পরে কথা বলবেন বলে কল কেটে দেন।

Facebook Comments Box


এ জাতীয় আরো সংবাদ